Program Information

কর্মসূচির নাম - জাতীয় পর্যায়ে মোবাইল অ্যাপ্‌স প্রশিক্ষক ও সৃজনশীল অ্যাপ্‌স উন্নয়ন কর্মসূচি
বাস্তবায়নকারী দপ্তর/সংস্থা - তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ
প্রশাসনিক মন্ত্রণালয়/বিভাগ - ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়
কর্মসূচির বাস্তবায়নকাল - ১২ মাস (জুলাই ২০১৪ – জুন ২০১৫)
বাস্তবায়ন সহযোগী প্রতিষ্ঠান - ইথিক্স অ্যাডভান্সড টেকনোলজি লিমিটেড (ইএটিএল)
এই কর্মসূচীর মূখ্য উদ্দেশ্য ছিল বাংলাদেশের জন্য প্রয়োজনীয় ও সামাঞ্জস্যপূর্ণ অ্যান্ড্রয়েডভিত্তিক ৫০০ মোবাইল অ্যাপ্‌স তৈরি করা। এই ৫০০ অ্যপসের মধ্যে ৩০০ অ্যাপ্‌স সরকারের মন্ত্রণালয় ও সংস্থাসমূহের তথ্য ও সেবার উপর এবং বাকী ২০০ অ্যাপ্‌স সৃজনশীল ধারণার উপর। এই কর্মসূচীর আওতায় দেশের ৭টি বিভাগের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ৫০০ জন তরুণ/তরুণীকে মোবাইল অ্যাপ্‌স উন্নয়নের উপর ৩ মাসব্যাপী বিস্তারিত প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। প্রশিক্ষণে সম্প্রতি তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন ‘জাতীয় পর্যায়ে মোবাইল এ্যাপ্লিকেশন উন্নয়নে সচেতনতা ও দক্ষতা বৃদ্ধি কর্মসূচী’-তে ৫-দিন ব্যাপী সংক্ষিপ্ত প্রশিক্ষণ প্রাপ্তদের মেধার ভিত্তিতে অগ্রাধিকার দেয়া হয়েছে। প্রশিক্ষণপ্রাপ্তরা প্রাথমিকভাবে মোবাইল অ্যাপ্‌সগুলো উন্নয়ন করেছে, প্রশিক্ষণার্থীরা বিস্তারিত প্রশিক্ষণ ও প্রত্যক্ষভাবে মোবাইল অ্যাপ্‌স তৈরির প্রতিটি ধাপে যুক্ত থাকার ফলে এই কর্মসূচীতে নিবন্ধিত ছেলেমেয়েরা দক্ষ মোবাইল অ্যাপ্‌স প্রশিক্ষকে পরিণত হতে পেরেছে। কর্মসূচীর মধ্যভাগে উন্নয়নকৃত ১০০টি মোবাইল অ্যাপ্‌স নিয়ে ৭টি বিভাগের বিভিন্ন সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে সেমিনার আয়োজন করে অ্যাপ্‌সগুলোর আরো মান-উন্নয়নে মতামত নেয়া এবং পরামর্শ গ্রহণ করা হয়েছে।

এই কর্মসূচী বাস্তবায়নের ফলে নিচের উদ্দেশ্যগুলো পূরণ হবেঃ

মোবাইল অ্যাপ্‌স তৈরিতে দক্ষ প্রজন্ম গড়ে তোলার জন্য প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষ প্রশিক্ষক তৈরি এবং তাদের জন্য চাকুরী ও স্বাধীনভাবে কাজ করার কৌশল প্রদান করা;
বাংলায় মোবাইল অ্যাপ্‌স ব্যবহারের মাধ্যমে দেশের জনসাধারণকে, বিশেষতঃ প্রান্তিক জনগোষ্ঠিকে সরকারী সেবা, নীতি ও নিজেদের অধিকার সম্পর্কে অবহিত করে সচেতন করা;
মা ও শিশুর স্বাস্থের উপর তথ্য ও ছবি ভিত্তিক অ্যাপ্‌স তৈরী করে স্বাস্থ্য সচেতনতা বৃদ্ধি করা;
জনসাধারণের মধ্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি ব্যবহারের জন্য সচেতনতা বৃদ্ধি করা;
সরকার, বেসরকারী উদ্যেক্তা ও ডেভলোপার সমাজের সাথে সমন্বিতভাবে কাজ করার মাধ্যমে মোবাইল অ্যাপ্‌স শিল্পের সাথে জড়িত সকলের আগ্রহ বাড়িয়ে বিনিয়োগের পরিবেশ সৃষ্টি করা;

প্রযুক্তির ক্রমবর্ধমান বিকাশে উন্নত বৈশিষ্টের ইন্টারনেট ও বাংলাভাষার সুবিধাযুক্ত মোবাইল ফোন আমাদের দেশে ক্রমশ সহজলভ্য হচ্ছে। ফলে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে যেখানে ঠিকমত বিদ্যুত পৌছায়নি, তারযুক্ত ইন্টারনেট পৌছায়নি, সেসব জায়গায় মানুষ মোবাইল ফোনের মাধ্যমে দেশের মূলধারার সাথে সংযুক্ত হচ্ছে। এইসব প্রান্তিক মানুষ তথা আপামর জনসাধারণের দোরগোড়ায় সরকারের তথ্য ও সেবাসমূহ পৌছানোর জন্য মোবাইল অ্যাপস প্রযুক্তি সরকারের কাছে এক অভিনব এবং কার্যকর উপায়। মোবাইল যেহেতু ব্যক্তিগত অনুসংগ হিসাবে ব্যবহৃত হয়, ব্যাক্তি বিশেষের জন্য প্রস্তুতকৃত যেমন, বয়স, লিংগভেদে তথ্য ও সেবা অনেক সফলতার সাথে প্রদান করা সম্ভব হয়। মোবাইল ফোনের মাধ্যমে সেবা প্রদান করলে শহর থেকে প্রত্যন্ত অঞ্চলের জনসাধারণ সমান ভাবে সরকারী সেবা পাবে যেটা দেশে ডিজিটাল বিভাজন হ্রাসে সহায়ক হবে।

মোবাইল অ্যাপসের ধারণাটি নতুন, আমাদের দেশে এখনও দক্ষ প্রশিক্ষকের অভাব রয়েছে। এজন্য দক্ষ প্রশিক্ষক তৈরী আমাদের এই কর্মসূচীর আরেকটি অন্যতম উদ্দেশ্য। আমাদের কর্মসূচীতে অংশগ্রহনকারী অ্যাপস ডিজাইনার, ডেভেলপার এবং টেস্টারদের দক্ষ প্রশিক্ষক দিয়ে প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে, যাতে কর্মসূচী শেষে তারা দেশে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে হাজার হাজার দক্ষ ও প্রশিক্ষিত কর্মী তৈরীতে সহয়তা করতে পারে।